ঘন ঘন মাথা ঘোরায়! ডায়েটের নিন সঠিক যত্ন - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Saturday, 8 January 2022

ঘন ঘন মাথা ঘোরায়! ডায়েটের নিন সঠিক যত্ন



ভার্টিগোর সমস্যায় ব্যক্তির ঘন ঘন মাথা ঘোরা, বমি বমি ভাব এবং শরীর শিথিল হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা হয়।  অন্তঃকর্ণ, স্নায়ুতন্ত্র এবং মস্তিষ্কে অনেক রোগের কারণে এই সমস্যা হতে পারে।  এ ছাড়া শরীরে আরও অনেক রোগের কারণেও ভার্টিগো অ্যাটাক বা মাথা ঘোরা হতে পারে।  এ অবস্থায় ব্যক্তির পুরো রুটিনই ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে।  শুধু তাই নয়, ভুক্তভোগী ব্যক্তি উঠতে ও যেকোনো কাজ করতেও সমস্যায় পড়তে পারেন।  কিন্তু যারা ভার্টিগোতে ভুগছেন তাদের হাল ছেড়ে দেওয়া উচিৎ নয় কারণ একটি সুষম খাদ্য এবং কিছু ব্যায়ামের সাহায্যে আপনি এই আক্রমণ কমাতে পারেন। 



এর পাশাপাশি আপনি আপনার শরীরকে সুস্থ রাখতে পারেন।  এর জন্য, আপনাকে কিছু বিশেষ ডায়েট টিপস মাথায় রাখতে হবে যাতে আপনি ভুলবশত এই জাতীয় জিনিসগুলি গ্রহণ না করেন, যা আপনার সমস্যাকে আরও বাড়িয়ে তুলবে।  ভার্টিগোর সমস্যায় আপনার খাদ্যাভ্যাস কেমন রাখা উচিৎ।  ডায়েট ক্লিনিক অ্যান্ড ডক্টর হাবের ডায়েটিশিয়ান অর্চনা বাত্রা জানাচ্ছেন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ও সতর্কতা।  এছাড়াও, ডাঃ চাঁদনি সুব্বা, কনসালটেন্ট ফিজিওথেরাপিস্ট, ফিজিওওয়ে, গুরগাঁও এর ব্যায়াম সম্পর্কে বলছেন।




 মাথা ঘোরার সমস্যা হলে এই জিনিসগুলো খান




 1. ভিটামিন এ




 মাথা ঘোরা সমস্যা অনেক কারণে হতে পারে, তাই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন যাতে আপনার শরীরের ভারসাম্য বজায় থাকে।  আপনি শুধুমাত্র ভারসাম্যের সাহায্যে এই সমস্যাটি কমাতে পারেন।  এর জন্য আপনাকে অবশ্যই আপনার খাদ্যতালিকায় ভিটামিন এ এর ​​পরিমাণ অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।  ভিটামিন এ খাওয়ার ফলে শরীরের কোষে ফ্রি র‌্যাডিক্যালের ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে না।  এর পাশাপাশি ভিটামিন এ ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং চোখের জন্যও ভালো বলে বিবেচিত হয়।  কারণ আপনার কম বা উচ্চ ডায়াবেটিস থাকলেও আপনি ভার্টিগোর আক্রমণ পেতে পারেন, তাই সবসময় আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা ভারসাম্য রাখার চেষ্টা করুন।  এ জন্য আপনার খাদ্যতালিকায় গাজর, মিষ্টি আলু, মটর, টমেটো, ব্রকলি এবং সবুজ শাক-সবজি খাওয়া উচিৎ।  এছাড়াও ফলমূলে হলুদ ও কমলা, আম, পেঁপে এবং কিডনি বিন খেতে পারেন।




 2. ভিটামিন ই




 ভিটামিন ই সেবন আপনাকে মানসিক ব্যাধি, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং কোলেস্টেরলের সমস্যা কমাতেও সাহায্য করে।  আসলে মাথা ঘোরার সমস্যায় হাই বিপি বা লো বিপির কারণেও অ্যাটাক আসতে পারে।  কোলেস্টেরল বৃদ্ধির কারণে উচ্চ রক্তচাপ বাড়তে পারে, তাই এটি নিয়ন্ত্রণ করতে আপনার সঠিক পরিমাণে ভিটামিন ই খাওয়া উচিৎ যাতে আপনার কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে থাকে।  এই জন্য, মাথা ঘোরা ঝুঁকি কমাতে ওটমিল, অ্যাভোকাডো, চিনাবাদাম, সূর্যমুখী বীজ, সয়াবিন তেল এবং পালং শাক খাওয়া উচিত।




 3. অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট




 অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সেবন অনেক রোগকে কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে, তবে মাথা ঘোরার সমস্যায়ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট খুবই উপকারী।  অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট সমৃদ্ধ।  যার সাহায্যে কানের রক্ত ​​সঞ্চালন এবং মাইগ্রেনের সমস্যাতেও এটি খুবই উপকারী।  এটি অন্যান্য দীর্ঘস্থায়ী রোগেও উপশম দেয়।  এর জন্য আপনি কিডনি বিন, আদা, বিট, রসুন, ডালিম, কিউই, বাদাম এবং ধনে খেতে পারেন।




 


 4. ভিটামিন সি




 ভিটামিন সি খেলে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো থাকে এবং শরীর রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি পায়।  এর পাশাপাশি, এটি শরীরকে ডিটক্সিফাই করতে এবং সংক্রমণ দূর করতেও সাহায্য করে, যা আপনাকে ভার্টিগোর সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে।  এটি আপনার স্নায়ুতন্ত্রকেও শক্তিশালী করে।  এ জন্য সাইট্রাস জাতীয় খাবার খেতে পারেন।  এ ছাড়া আমলা, লেবু, কমলা, টমেটো, পেয়ারা, আপেল ও কালা খেতে পারেন।  এটি আপনার মন এবং আত্মাকেও সতেজ রাখে।  এর পাশাপাশি বমি ও বমি বমি ভাবের সমস্যাও কমে।




 5. ভিটামিন বি 12




 ভিটামিন বি 12 এর সাহায্যে এটি মস্তিষ্ক সম্পর্কিত ব্যাধিগুলি কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে।  এছাড়াও, স্নায়ুতন্ত্রের সমস্যা দূর করতে ভিটামিন বি 12 খুবই গুরুত্বপূর্ণ।  এর জন্য আপনি আপনার খাদ্যতালিকায় মাছ, টফু, সয়া মিল্ক, কটেজ চিজ এবং ডিম অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।  ভার্টিগোতে আক্রান্ত ব্যক্তি একটি সুষম খাদ্যের সাহায্যে অনেক উপশম পান।




 


 মাথা ঘোরার সমস্যা হলে কি খাবেন না




 1. লবণ




 মাথা ঘোরার সমস্যা হলে অতিরিক্ত লবণ বা টক জাতীয় খাবার খাওয়া উচিৎ নয়।  এটি আপনার রক্তচাপ বাড়িয়ে দিতে পারে এবং আপনাকে মাথা ঘোরা বা আপনার মস্তিষ্ককে প্রভাবিত করতে পারে।  তাই ভার্টিগোতে লবণের পরিমাণ কমিয়ে দিন।




 


 2. মিষ্টি




 এই সমস্যায় মিষ্টিও এড়িয়ে চলা উচিৎ কারণ ডায়াবেটিসের সমস্যা বাড়তে বা কমলেও ভার্টিগো অ্যাটাক হতে পারে।  এ ছাড়া অতিরিক্ত মিষ্টি ও বাইরের খাবার এড়িয়ে চলুন।




 3. ক্যাফেইন




 ক্যাফেইনযুক্ত খাবার খাওয়া আপনার ঘুমের কারণ হতে পারে।  অতিরিক্ত পরিমাণে ক্যাফেইন গ্রহণ মস্তিষ্কের কোষগুলিকে উদ্দীপিত করতে পারে এবং মাইগ্রেনের সমস্যাও বাড়িয়ে দিতে পারে।  তাই চা, কফি, চকলেট এবং এনার্জি ড্রিংকস খান।




 4. সিগারেট এবং অ্যালকোহল সেবন




 আপনি যদি সিগারেট এবং অ্যালকোহল পান করেন, তাহলে ভার্টিগোর সমস্যা আরও বাড়তে পারে।  এটি ঘন ঘন মাথা ঘোরা এবং হালকা মাথাব্যথার কারণ হতে পারে কারণ এতে উপস্থিত নিকোটিন মস্তিষ্কে রক্ত ​​​​প্রবাহকে প্রভাবিত করে।




 


 মাথা ঘোরার সমস্যা থাকলে এই ব্যায়ামটি করুন




 1. ভার্টিগোতে, আপনি একজন ব্যক্তির সাহায্যে কিছু বিশেষ ব্যায়াম করতে পারেন।  যেমন আপনার সামনে কলম রাখুন এবং কলমটিকে উপরে-নিচের দিকে সরান। সেই অনুযায়ী, আপনার চোখও ধুয়ে ফেলুন।  এটি আপনাকে অনেক স্বস্তি দেবে।




 2. এটি ছাড়াও, আপনি ডান-বাম দিকে কলম ঘোরানোর মাধ্যমেও ব্যায়াম করতে পারেন।  এর জন্য আপনাকে শুধুমাত্র চোখের নড়াচড়া করতে হবে।




 3. তৃতীয় অনুশীলনে, কলমের নড়াচড়ার সাথে আপনার মাথাটি সরান।  এর সাহায্যে, আপনি মাথা ব্যাথা এবং মাথা ঘোরাতেও উপশম পাবেন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad