কীভাবে একটি ছোট চরিত্র পাল্টে দিতে পারে এক জীবন? জেনে নিন - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Sunday, 13 November 2022

কীভাবে একটি ছোট চরিত্র পাল্টে দিতে পারে এক জীবন? জেনে নিন



  কৃষক পরিবারে জন্ম ও বেড়ে ওঠা দারা সিং রনধাওয়া ছিলেন একজন কুস্তিগীর।  তিনি রেসলিং রিংয়ে জায়গা করে নিয়ে নিজের ভাগ্য গড়ে নেন। 


রুস্তুম-ই-হিন্দ নামে খ্যাতি পাওয়া দারা সিং তার ক্যারিয়ারে প্রায় ৫০০টি ফাইট খেলেছিলেন।  দারা সিং,  ২০০ কেজি ওজনের কিং কংকে পরাজিত করেছিলেন, ১০ বার ওয়ার্ল্ড হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছেন।  এমনকি কমনওয়েলথ, বিশ্ব কুস্তি, মালয়েশিয়ার চ্যাম্পিয়নের খেতাবও জিতেছেন।


 তিনি ১৯৯৬ সালে হল অফ ফেম এবং ২০১৮ সালে WWE হল অফ ফেম খেতাব পেয়েছিলেন।  দারা সিং ১৯৮৩ সালে কুস্তি থেকে অবসর নেন।

প্রথম বিয়ের পর বাচনো কৌরের সাথে বিচ্ছেদ হওয়ার পর ১৯৬১ সালে সুরজিত কৌরকে বিয়ে করেন।  আর তাঁদের ছেলে হয় বিন্দু দারা সিং। 


এরপর খেলা ছেড়ে বলিউডে পা রাখেন দারা সিং।   তিনি প্রথম হি-ম্যানের খেতাব অর্জন করেছিলেন।  যদিও দারা তার কর্মজীবনে অনেক চলচ্চিত্র এবং টিভি শো করলেও , রামানন্দ সাগরের রামায়ণে ভগবান হনুমানের চরিত্র করে খুবই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।


  দারা সিং যখন রামানন্দ সাগরের 'রামায়ণ'-এর 'হনুমান' চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন, তখন তাঁর বয়স ছিল ৬০ বছর।  'হনুমান' চরিত্র করে তিনি এতটাই বিখ্যাত হন যে লোকজন তাঁকে হনুমান বলে পূজো করতে শুরু করে। 


 একটি সাক্ষাৎকারে, দারা সিংয়ের ছেলে বিন্দু দারা সিং জানান যে বাবার হনুমানের চরিত্রে অভিনয় করার পর ব্যক্তিগত জীবনে অনেক পরিবর্তন আসে তাঁর।সাক্ষাৎকারের সময় বিন্দু আরও বলেন যে তাঁর বাবা ঘুমের মধ্যেও ডায়লগ বলতেন।  তিনি আমিষ ছেড়ে দেন।


 'যব উই মেট' ছিল দারা সিংয়ের শেষ ছবি। কারিনা কাপুরের দাদুর চরিত্রে দেখা যায় তাঁকে। 

  কুস্তিগীর-অভিনেতা-রাজনীতিবিদ দারা সিং ১২ জুলাই ২০১২ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad