অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যে রুষ্ট, ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেন রাজ্যপাল - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Saturday, 4 June 2022

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যে রুষ্ট, ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেন রাজ্যপাল



 রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর এবং রাজ্যের শাসক দল টিএমসি পারস্পরিক দ্বন্দ্ব  থামবার নামই নিচ্ছে না।  দার্জিলিং সফর থেকে ফিরে আসার সময়, রাজ্যপাল ধনখর আবার ডায়মন্ড হারবার টিএমসির সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেওয়া বক্তব্যে তীব্র প্রতিবাদ করেছেন। 


রাজ্যপাল স্পষ্টভাবে বলেছেন যে রাজ্যের মুখ্য সচিবকে  ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা অনুযায়ী টিএমসির এই সাংসদের বক্তব্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


 রাজ্যপাল স্পষ্ট বলেছেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়।  অন্য রাজ্য থেকে এমন বক্তব্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়, তাহলে বাংলায় কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না।   এর আগে, রাজ্যপাল টিএমসি সাংসদ অভিষেকের এই বক্তব্যের জন্য বলেছিলেন যে তিনি সীমা অতিক্রম করেছেন।


সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর বলেন, “ডায়মন্ড হারবারের সাংসদরা আইনের ঊর্ধ্বে নন।  ভারতীয় দণ্ডবিধির অধীনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ।  হাইকোর্টের বিচারকের ওপর হামলার ঘটনা এটাই একমাত্র ঘটনা নয়।  নন্দীগ্রাম মামলার বিচারকের ওপরও হামলা হয়েছিল।     বিচারকের ওপর হামলা হলেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তবে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মুখ্য সচিবকে চিঠি দিয়েছি।  অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে অন্যান্য রাজ্য থেকে।  তাহলে এই রাজ্যে গণতন্ত্রের ওপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না কেন?  ভারতীয় দণ্ডবিধিতে আইন আছে।  সাংসদের বক্তব্য দেখেছি।    কি হচ্ছে এই রাজ্যে?  এসএসসি দুর্নীতি মামলা কেন সামনে এল?  দুর্নীতি কারা করেছে?  এই সমস্ত বিষয়ে উত্তর প্রয়োজন।"


 এর আগেও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর অভিষেকের বক্তব্যকে আক্রমণ করেছিলেন।  তিনি বলেছিলেন যে তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সিবিআই তদন্তের আদেশের জন্য বিচার বিভাগের সমালোচনা করে সীমা অতিক্রম করেছেন।


অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে রাজ্যপাল রাজ্যের মুখ্য সচিবকে অবিলম্বে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।  এর পরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপালকে পাল্টা আঘাত করে অভিযোগ করেছিলেন যে কে সীমা অতিক্রম করছে তা সবাই জানে।  আর রাজ্যপাল যেভাবে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।  তার থেকে বোঝা যায় কার মনে চোর আছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad