উপনির্বাচনে প্রার্থী না দেওয়ার সিদ্ধান্ত বিএসপির - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Tuesday, 31 May 2022

উপনির্বাচনে প্রার্থী না দেওয়ার সিদ্ধান্ত বিএসপির



উত্তরপ্রদেশের দুটি লোকসভা আসনের উপনির্বাচন ঘোষণা করা হয়েছে।  রাজ্যের দুটি লোকসভা আসন, আজমগড় এবং রামপুরে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।  এই নির্বাচনে ক্ষমতাসীন বিজেপি এখনও কোনো প্রার্থী ঘোষণা করেনি।  যেখানে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে দুটি আসনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে সমাজবাদী পার্টি।  অন্যদিকে রামপুর আসন থেকে প্রার্থী না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরেক বিরোধী দল বিএসপি।


 ইউপিতে দুই এসপি সাংসদের পদত্যাগে খালি হওয়া আসনে উপনির্বাচন হবে।  আজমগড় থেকে অখিলেশ যাদব এবং রামপুর থেকে আজম খান সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।  দুজনেই এখন বিধায়ক।  তবে এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আজমগড়ে প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসপি।  তবে দলটি রামপুর থেকে কোনো প্রার্থী দেবে না বলে জানিয়েছে।  এমতাবস্থায় আজম খানের ব্যাপারে বিএসপির নরম অবস্থান বলেই মনে করা হচ্ছে।


 আজম খানকে নিয়ে বিএসপির এই মনোভাব এই প্রথম দেখা যায়নি।  এর আগেও আজম খান যখন জেলে ছিলেন, তখন তাঁকে নিয়ে বিজেপি সরকারকে নিশানা করেছিলেন বিএসপি প্রধান মায়াবতী। 


এরপর তিনি টুইটে লেখেন, "কংগ্রেসের মতো ইউপি ও অন্যান্য বিজেপি শাসিত রাজ্যে নৃশংসতা চালানো হচ্ছে, গরিব, দলিত, আদিবাসী ও মুসলমানদের টার্গেট করে। প্রায় আড়াই বছর ধরে বিধায়ক আজম খানকে জেলে রাখার বিষয়টি। জনগণের চোখে বিচারের শ্বাসরোধ করাই তো বলে একে।


 বিধানসভা নির্বাচনে এসপির বাজে পরাজয়ের পরে, অনেক বড় মুসলিম নেতাদের দলের বিরুদ্ধে বিবৃতিও সামনে এসেছে।  এর পর বলা হচ্ছে অনেক বড় মুসলিম নেতা অখিলেশ যাদবের ওপর ক্ষুব্ধ।  অন্যদিকে, বিএসপি আজম খানের প্রতি নরম মনোভাব নিয়ে এই মুসলিম নেতাদের পাশে আনার চেষ্টা করছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad