ঘণ্টা বাজালে পরিবেশের ওপর কী প্রভাব পড়ে জানেন? - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Friday, 26 August 2022

ঘণ্টা বাজালে পরিবেশের ওপর কী প্রভাব পড়ে জানেন?



মন্দিরে প্রবেশের সময় ঘণ্টা বাজানোর প্রথা প্রাচীনকাল থেকেই চলে আসছে।  ঘণ্টা বাজানো ছাড়া আরতি সম্পূর্ণ হয় না।  মন্দিরে প্রবেশের পর ঘণ্টা কেন বাজানো হয়?  এর পেছনে কী কোনও কারণ আছে?  আসুন জেনে নেই উত্তর-


 ধর্মীয় তাৎপর্য:


 মন্দিরে ঘণ্টা বাজানোর কারণ সেখানে স্থাপিত দেব-দেবীর মূর্তির মধ্যে চেতনা জাগ্রত হয়। ঘণ্টা বাজানো মানে ঈশ্বরের সামনে আপনার উপস্থিতি।


     ধর্মীয় বিশ্বাস অনুসারে, ঘণ্টা বাজালে দেবতারা খুশি হন এবং ভক্তদের উপর তাদের আশীর্বাদ বর্ষণ করেন।  কথিত আছে, ঘণ্টা, শঙ্খ ইত্যাদির ধ্বনি ভগবানের অত্যন্ত প্রিয়।  ঘণ্টার ধ্বনি পরিবেশে পবিত্রতা আনে।


     ঘণ্টাটিকে মহাবিশ্ব সৃষ্টির সময় অনুরণিত শব্দের প্রতীক হিসাবে বিবেচনা করা হয়।  এই কারণেই যদি ঘণ্টা বাজিয়ে শুভ কাজ শুরু করা হয়, তাহলে অবশ্যই ভগবানের আশীর্বাদ পাওয়া যায়।


ঘণ্টা বাজানোর বৈজ্ঞানিক কারণ:


     বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে মন্দিরে ঘণ্টা বাজানোর পরিবেশে দূর-দূরান্তে প্রবল কম্পন  বাতাসে উপস্থিত বিভিন্ন ধরনের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর হয়।


     মন্দিরে ঘণ্টার শব্দ তরঙ্গ বায়ুমণ্ডলকে প্রভাবিত করে এবং এটি একটি শান্ত, ধার্মিক এবং মনোরম পরিবেশ তৈরি করে।  এটি নেতিবাচক শক্তিকে ধ্বংস করে এবং ইতিবাচক শক্তি সঞ্চার করে।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad