সরীসৃপরা কেন দীর্ঘ দিন বেঁচে থাকে? মানুষেরা কেন নয় - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Saturday, 25 June 2022

সরীসৃপরা কেন দীর্ঘ দিন বেঁচে থাকে? মানুষেরা কেন নয়



যে এই পৃথিবীতে জন্ম নিয়েছে, তাঁকেই একদিন না একদিন এই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করতেই হবে। এই সত্যি কখনও নড়চড় হবে না।


 পৃথিবীতে এমন কিছু প্রজাতির জীবও রয়েছে, যারা বেঁচে থাকে শত শত বছর। গবেষণার সময়, গবেষকরা এই থিমের উপর কাজ করেছিলেন যে ব্যাঙ, স্যালামান্ডার এবং সরীসৃপের মতো ঠান্ডা রক্তের প্রাণীরা দীর্ঘজীবি হয় কারণ তাদের বার্ধক্য ধীর হয়।


 প্রথমত, কচ্ছপের শত শত বছর ধরে বেঁচে থাকে? ১৯০ বছর বয়সে, জোনাথন নামের সেশেলিসের দৈত্য কচ্ছপ পৃথিবীর প্রাচীনতম প্রাণী।  


 ফ্লিন্ডার্স ইউনিভার্সিটির গবেষক মাইক গার্ডনার এবং তার অন্যান্য সহযোগী গবেষকদের একটি গবেষণা জার্নালে সায়েন্সে প্রকাশিত হয়েছে।  এই গবেষণাটি সরীসৃপ এবং উভচর প্রাণীদের দীর্ঘায়ু এবং বার্ধক্যকে প্রভাবিত করা নিয়ে।


 মাইক গার্ডনার লিখেছেন, যে তাঁরা ৭৭ টি বিভিন্ন প্রজাতির সরীসৃপ এবং উভচর প্রাণী নিয়ে কাজ করেছেন। 


    ঠান্ডা রক্ত যেসব প্রাণীদের তাদের শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করার জন্য বাইরের তাপমাত্রার উপর নির্ভর করতে হয়।  ফলে তাদের মধ্যে 'মেটাবলিক' প্রক্রিয়া ধীর হয়ে যায়।  মেটাবলিজম বলতে বোঝায় যে হারে তারা যা খায় এবং পান করে তা শক্তিতে রূপান্তর করে।


     ছোট এবং উষ্ণ রক্তের প্রাণী, যেমন ইঁদুরের  বিপাক ক্রিয়া দ্রুত হওয়ার কারণে এরা বেশী দিন বাঁচে না। কিন্তু কচ্ছপদের বয়স ধীরে ধীরে হয় কারণ তাদের বিপাক ধীর হয়।

      গবেষকরা দেখেছেন যে ঠাণ্ডা রক্তের প্রাণীরা একই আকারের উষ্ণ রক্তের প্রাণীদের মতো দ্রুত বয়সী হয় না।


 ঠান্ডা রক্তের প্রাণীই উষ্ণ অঞ্চলের প্রাণীদের চেয়ে বেশি দিন বাঁচবে।  

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad