চণ্ডীগড় মেয়র নির্বাচনের পরে কংগ্রেস বিজেপির মিত্র: টিএমসি মুখপাত্র - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Wednesday, 12 January 2022

চণ্ডীগড় মেয়র নির্বাচনের পরে কংগ্রেস বিজেপির মিত্র: টিএমসি মুখপাত্র



তৃণমূল কংগ্রেস মুখপাত্র "জাগো বাংলা" ১১ জানুয়ারি মঙ্গলবার একটি সম্পাদকীয়তে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে নতুন আক্রমণ শুরু করেছে। যেখানে দাবি করেছে যে চণ্ডীগড় মেয়র নির্বাচনের ফলাফল দেখায় যে কংগ্রেস দলটি এখন ভারতীয় জনতা পার্টির মিত্র। 

সংবাদপত্রের ১১ জানুয়ারী সংখ্যায় প্রকাশিত এবং "দ্বিচারী কংগ্রেস" শিরোনামে সম্পাদকীয়টি পড়ে কংগ্রেসের চরিত্র সামনে আসছে। কংগ্রেস দাবি করেছে যে বিজেপি ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করে এবং দল কখনই তাদের সঙ্গে জোটেনি। কিন্তু হরিয়ানায় কী হল? চণ্ডীগড় পৌর নির্বাচনের ফলাফল AAP ১৪, বিজেপি ১২, কংগ্রেস ৮, আকালি দল ১ সব মিলিয়ে পৌরসভার আসন রয়েছে ৩৫ টি। AAP প্রার্থীর মেয়র হওয়ার সম্ভাবনা ছিল প্রবল। কিন্তু কোন শক্তি বিজেপিকে মেয়র পদ পেতে সাহায্য করেছে তা জেনে আশ্চর্যজনক।”

সম্পাদকীয়তে আরও বলা হয়েছে “কংগ্রেস কোনো কারণ ছাড়াই মেয়র নির্বাচন থেকে সরে এসেছে। সাতজন কংগ্রেস কাউন্সিলর ভোট দেননি।" ভোট শেষ হওয়ার পর বিজেপি টাই (১৪-১৪)। AAP এর একটি ভোট বাতিল করে বিজেপি ক্ষমতায় এসেছে। এটাই বিজেপির চরিত্র। এখন তার মিত্র কংগ্রেস।” টিএমসি শিবিরের কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক আক্রমণের মধ্যে সম্পাদকীয়টি সর্বশেষ।

২০২১ সালের ডিসেম্বরে প্রকাশিত তার আগের সম্পাদকীয়গুলির একটিতে জাগো বাংলা কংগ্রেসকে "যুদ্ধ-ক্লান্ত" বলে উল্লেখ করেছিল। এর আগে টিএমসির রাজনৈতিক কৌশলবিদ প্রশান্ত কিশোরও বিরোধী দল হিসাবে কংগ্রেসের ভূমিকার সমালোচনা করেছিলেন। বিরোধীদলীয় নেতৃত্ব গণতান্ত্রিকভাবে নির্ধারণ করা হোক।   

সাম্প্রতিক মুম্বাই সফরের সময় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন যে "এখন কোন ইউপিএ নেই" এবং "সব আঞ্চলিক দল একসঙ্গে থাকলে বিজেপিকে পরাজিত করা খুব সহজ হবে।" উল্লেখ্য ২০২১ সালের নভেম্বরে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা সহ মণিপুরের ১২ জন কংগ্রেস বিধায়ক টিএমসিতে যোগদান করেছিলেন।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad