প্রতিটি বিবাহিত মহিলার জানা উচিৎ এই ৪টি আইনি অধিকার - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Monday, 25 October 2021

প্রতিটি বিবাহিত মহিলার জানা উচিৎ এই ৪টি আইনি অধিকার



বিয়ে এমন একটি সম্পর্ক, যা শুধু দুজন মানুষকে আবদ্ধ করে না, দুটি পরিবারকেও একত্রে রাখে।  এই বন্ধন পূরণের ক্ষেত্রে স্ত্রীর দায়িত্ব যতটা স্বামীর, সে এই সম্পর্ককে পূর্ণ নিষ্ঠার সঙ্গে রাখে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত।  একে অপরের সমর্থন, শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা জীবনের এই যাত্রাকে সুন্দর করে তোলে।  তবে অনেক সময় তা হয় না।  আমাদের সামনে এরকম অনেক ঘটনা আছে, যেগুলোতে সম্পর্ক বাঁচাতে নারীরা নিজের উপর বছরের পর বছর অত্যাচার সহ্য করে।  কখনও জনগণের লজ্জা ও সমাজের ভয়ে আবার কখনও নিজের অধিকার সম্পর্কে না জানার কারণে নারীরা ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সের শিকার হন।  আসুন জেনে নেওয়া যাক বিবাহিত নারীদের অধিকার কি কি।



 

 যৌতুক ও ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সের বিরুদ্ধে অধিকার


 আপনি প্রায়ই এমন ঘটনা শুনেছেন যেখানে যৌতুকের কারণে মহিলাদের অনেক কষ্ট করতে হয়।  আমাদের দেশের মহিলাদের যৌতুক নিষিদ্ধকরণ আইন ১৯৬১ এর অধীনে এই অধিকার দেওয়া হয়েছে যে যদি তার পৈতৃক পরিবার বা শ্বশুরবাড়ির মধ্যে কোনও ধরনের যৌতুকের লেনদেন হয়, তাহলে সে এই বিষয়ে অভিযোগ করতে পারে।  একই সময়ে, IPC (ভারতীয় দণ্ডবিধি, ১৮৬০) এর ধারা 304B (যৌতুক হত্যা) এবং 498A (যৌতুকের জন্য নির্যাতন) এর অধীনে যৌতুকের লেনদেন এবং সংশ্লিষ্ট ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সকে বেআইনি এবং একটি অপরাধ হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে।



 ঘরোয়া সহিংসতার বিরুদ্ধে অধিকার

 ঘরোয়া সহিংসতা আইন ২০০৫ নারীদের সুরক্ষার জন্য প্রণীত হয়েছিল।  এর আওতায় একজন নারীকে অধিকার দেওয়া হয়েছে, যদি স্বামী বা তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে শারীরিক, মানসিক, যৌন বা আর্থিকভাবে নির্যাতন বা শোষণ করে, তাহলে নির্যাতিতা তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে পারবে।



 সম্পত্তির অধিকার

 বেশিরভাগ মহিলা বা মেয়েরা জানে না যে বিয়ের পরেও তারা তাদের পিতামাতার সম্পত্তির অধিকারী।  হিন্দু উত্তরাধিকার আইন, ১৯৫৬-২০০৫ সালে সংশোধন করা হয়েছিল।  এর অধীনে একজন কন্যা বিবাহিত হোক বা না হোক, তার পিতার সম্পত্তির উত্তরাধিকারের সমান অধিকার রয়েছে।



 গর্ভপাতের অধিকার

 যে কোনও নারীর গর্ভপাতের অধিকার রয়েছে। অর্থাৎ তিনি চাইলে তার গর্ভে বেড়ে ওঠা সন্তান গর্ভপাত করতে পারেন।  এর জন্য তার স্বামী বা শ্বশুরবাড়ির সম্মতির প্রয়োজন নেই।  দ্য মেডিকেল টার্মিনেশন অফ প্রেগন্যান্সি অ্যাক্ট, ১৯৭১-এর অধীনে এই অধিকার দেওয়া হয়েছে যে কোনও মহিলা যে কোনও সময় তার গর্ভধারণ বন্ধ করতে পারেন। তবে এর জন্য গর্ভাবস্থা ২৪ সপ্তাহের কম হওয়া উচিৎ।  কিন্তু বিশেষ ক্ষেত্রে, একজন মহিলা ২৪ সপ্তাহ পরেও তার গর্ভাবস্থা গর্ভপাত করতে পারেন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad