স্নায়ুতন্ত্রের এই রোগ ব্যক্তিকে হিংস্র করে তোলে - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Wednesday, 27 October 2021

স্নায়ুতন্ত্রের এই রোগ ব্যক্তিকে হিংস্র করে তোলে



আপনি কি কারও শ্বাস -প্রশ্বাস, চিবানো বা বাজি ফাটার শব্দ শুনে বিরক্ত হন? আপনি কি এমন শব্দ শুনে আপনার শীতলতা হারিয়ে ফেলেন এবং আপনার মনে হয় নির্জনতায় কোথাও যাচ্ছেন?  যদি হ্যাঁ, তাহলে আপনি মিসোফোনিয়া নামক রোগে ভুগছেন।  চিকিৎসা ভাষায়, মিসোফোনিয়া স্নায়ুতন্ত্রের একটি ব্যাধি।  এই রোগে, একটি বিশেষ ধরনের কণ্ঠের কারণে, ব্যক্তি রাগ এবং স্নায়বিক রোগ হতে পারে।


মেজোফোনিয়া কি :চিকিৎসকদের মতে, মেজোফোনিয়া একটি সাউন্ড ডিসঅর্ডার।  এই রোগে রোগী একটি বিশেষ ধরনের শব্দে বিরক্ত হয়।  এমন পরিস্থিতিতে, ব্যক্তি শ্বাস -প্রশ্বাসের শব্দ, খাবার খাওয়ার শব্দ, ঘড়ির হাতের শব্দ, কিছু গিলে ফেলার শব্দ বা কিছু চাটার শব্দে বিরক্ত বোধ করতে শুরু করে।


 এই শব্দগুলির কারণে, মিসোফোনিয়ায় আক্রান্ত ব্যক্তি উত্তেজিত, রাগী বা খিটখিটে অনুভব করতে শুরু করে।  এই শব্দগুলির কারণে, ব্যক্তির প্রকৃতি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে। এমনকি সেই ব্যক্তি হিংস্র হয়ে ওঠে।


 রোগীর অবস্থা কেমন: যে আওয়াজ বা কণ্ঠের সাথে ব্যক্তির সমস্যা হয়, তা শুনেলেই ব্যক্তির স্বভাব সম্পূর্ণ ভিন্ন হয়ে যায়।  তার শ্বাস ত্বরান্বিত হয়, রাগে তার মুখ লাল হয়ে যায় এবং সে তার হাত -পা মুচড়াতে থাকে। 


অনেক সময় ব্যক্তির শরীর কম্পন শুরু করে এবং সে এই শব্দগুলি থেকে পালানোর চেষ্টা শুরু করে। ব্যক্তি ব্যক্তিগতভাবে সেই কণ্ঠ থেকে অনেক দূরে চলে যায় এবং ঘণ্টার পর ঘণ্টা নির্জনে বসে থাকে।  অনেক সময় সেই শব্দ শুনে ব্যক্তি বিরক্ত হয় এবং সেই আওয়াজ তৈরী কারী ব্যক্তির ক্ষতি করার চেষ্টা শুরু করে।


 চিকিৎসা: এই রোগটি আচরণগত থেরাপির মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়। যেমন,থেরাপি এবং টিনিটাস মিসোফোনিয়া দিয়ে চিকিৎসা করা হয়ে থাকে।  এছাড়াও, মিসোফোনিয়ার রোগে, মনোচিকিৎসকরা জীবনধারা এবং আচরণের পরিবর্তনের পরামর্শ দেন।  ঘুমের সময় উন্নত করা, স্ট্রেসের মাত্রা কমানো, দৈনন্দিন ব্যায়াম এবং পুষ্টিকর খাবার মিসোফোনিয়ার চিকিৎসায় সাহায্য করতে পারে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad