তালেবানকে শুভেচ্ছা জানিয়ে কাশ্মীর মুক্ত করার ডাক আল-কায়েদার - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Thursday, 2 September 2021

তালেবানকে শুভেচ্ছা জানিয়ে কাশ্মীর মুক্ত করার ডাক আল-কায়েদার

 




আফগানিস্তান জয়ে তালেবানকে সাধুবাদ জানিয়ে কাশ্মীরকে মুক্ত করার ডাক দিয়েছে আলকায়েদা। একই সঙ্গে বিশ্বের সমস্ত মুসলিম ভূমিকে ‘শত্রু’র হাত থেকে মুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছে এই জঙ্গিগোষ্ঠী। 



মার্কিন বাহিনী কাবুল বিমানবন্দর ছাড়তেই ‘পূর্ণ স্বাধীনতা’ ঘোষণা করে তালেবান। দলটির এই জয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে আলকায়েদা যেভাবে কাশ্মীর ‘মুক্তি’র ডাক দিয়েছে তাতে চিন্তা বেড়েছে দিল্লির। যদিও বিষয়টিতে পাত্তা দিতে নারাজ ভারতের সেনাবাহিনী। 


সম্প্রতি কাশ্মীরে একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন হয়। সেখানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর লেফটন্যান্ট জেনারেল ডি পি পান্ডে। ১৫ কর্প বা কাশ্মীরের বিশেষ বাহিনী চিনার কর্পের কমান্ডিং অফিসার তিনি। স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পান্ডে বলেছেন, আফগানিস্তান তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার ফলে কাশ্মীরে তার প্রভাব পড়বে না। কাশ্মীরের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করেছে সেনারা। কিন্তু আফগানিস্তানে তালেবান ক্ষমতায় আসার পর থেকেই জম্মু-কাশ্মীরে হামলা বেড়েছে। অঞ্চলটিতে লড়াইয়ের ডাক দিয়ে তালিবানের সহযোগিতা চেয়েছে লস্কর-ই তৈয়বা। এবার কাশ্মীর নিয়ে আলকায়েদার তৎপরতায় নয়াদিল্লির উদ্বেগ আরও বেড়েছে। ভারতের সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, উত্তর ভারতের অভিন্ন অঙ্গ জম্মু ও কাশ্মীর। তাই সে দেশের মানচিত্রে পাকিস্তান ও চীন নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরকেও ভারতের অংশ হিসেবে দেখানো হয়। শুধু তাই নয়, ভারতে সরকার অনুমোদিত নকশা ছাড়া কাশ্মীরের অন্য সব মানচিত্র অবৈধ।

সেনা অফিসার যা-ই বলুন, সেনা সূত্রই বলছে, গত কয়েক মাসে কাশ্মীরে উত্তেজনা অনেক বেড়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ করা যাবে না এই শর্তে ডিডব্লিউকে জানিয়েছেন, ‘অন্তত ছয়টি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কাশ্মীরে প্রবেশ করেছে। তারা ক্রমাগত নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।’ ৫০ থেকে ৬০ জন ‘সন্ত্রাসী’ নিয়মিত সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হচ্ছে। সেনাকে বিভিন্ন এলাকায় ব্যস্ত রাখছে তারা। কেন ব্যস্ত রাখছে? ওই ব্যক্তির মতে, এই সুযোগে সীমান্তে একাধিক লঞ্চপ্যাডে পুনরায় সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো নিজেদের অবস্থান শক্ত করছে।


গত কয়েক বছরে ওই রকম একাধিক লঞ্চপ্যাড ধ্বংস করেছিল ভারতীয় সেনা।

আরও দুটি বিষয় নিয়ে সংশয়ে আছে সেনা। গত কয়েক মাসে ৫০ থেকে ৬০ জন কাশ্মীরি যুবক বেপাত্তা হয়েছে। তাদের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, কাজের জন্য বাইরে যাচ্ছে বলে বাড়ি ছেড়েছে ওই যুবকরা। কিন্তু কোনো যোগাযোগের ঠিকানা দিয়ে যায়নি।

এদিকে মুসলিম ভূমিকে ‘মুক্তি’র ডাক দিয়ে আলকায়েদা একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ‘লেভান্ত, সোমালিয়া, ইয়েমেন, কাশ্মীর ও বাকি মুসলিম ভূমিকে শত্রুর হাত থেকে আমাদের রক্ষা করতে হবে।’ বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রকে আক্রমণ করে বলা হয়েছে, ‘যারা অপমান করেছে, সেই সাম্রাজ্যবাদী শক্তির পরাজয় ফের আফগানিস্তানকে মুক্তির স্বাদ দিয়েছে। আর এটা প্রমাণ করছে যে, জয়ের একমাত্র রাস্তা জিহাদ।’

এদিকে মঙ্গলবার দোহায় তালেবান প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক করেছেন কাতারে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত। এটিই তালেবানের সঙ্গে ভারতের প্রথম কোনো আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক যোগাযোগ। বৈঠকে আফগানিস্তানের মাটি ভারতবিরোধী কর্মকান্ড ও সন্ত্রাসবাদের জন্য ব্যবহৃত হতে পারে বলে দিল্লির পক্ষ থেকে উদ্বেগ তুলে ধরা হয়। তবে তালেবানের পক্ষ থেকে দিল্লির এই উদ্বেগ ইতিবাচকভাবে সমাধানের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad