মাঝে মাঝে পেট ব্যথা হলে একদম গাফিলতি করবেন না, দেখে নিন কি হয়েছিল এই ছোট্ট মেয়েটির সঙ্গে - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Monday, 27 September 2021

মাঝে মাঝে পেট ব্যথা হলে একদম গাফিলতি করবেন না, দেখে নিন কি হয়েছিল এই ছোট্ট মেয়েটির সঙ্গে





নিউজ ডেস্ক : ইংল্যান্ডের প্লাইমাউথে এক ১২ বছরের কিশোরীর জরায়ু ক্যান্সার ধরা পড়েছে।  সিনিয়াদ জেলিক নামের এই মেয়ের প্রায়ই পেটে ব্যাথা হত। সিনিয়াদের পরিবার তার চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন উপায়ে টাকা জোগাড় করেছিল।



 'দ্য সান'-এর খবরে বলা হয়েছে, ইংল্যান্ডের প্লাইমাউথ-এ এমনই একটি ঘটনা প্রকাশ পেয়েছে, যেখানে ১২ বছর বয়সী একটি মেয়ে, যখন পেটে ব্যথার সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছায়, তখন সে জানতে পারে যে সে ক্যান্সারে ভুগছে। ডাক্তাররা তাকে পরীক্ষা করলে দেখা যায় যে তার জরায়ুর ক্যান্সার ছিল।


 সিনিয়াদ জেলিকের মা জোডি জানিয়েছেন, ক্রিসমাসের দিন সিনিয়াদের প্রথম কেমোথেরাপি হয়েছিল।  তার চিকিৎসা অব্যাহতভাবে চলছে।  এই সময় তার পুরো চুল পড়ে গেছে এবং এখন সে উইগ পরে। তিনি জানান, কেমোথেরাপি এখন সম্পূর্ণ এবং এখন আমাদের কিডনি পরামর্শকের সঙ্গে দেখা করতে হবে।  বছরের শুরুতে, আমাদের বিচ্ছিন্ন করতে হয়েছিল যাতে করোনার কারণে তার কোনও সমস্যা না হয়।  সিনিয়াদের জরায়ুতে চারটি ক্যানসারের গলদা বাকি আছে এবং সেগুলো অপসারণ করা যাবে না। যদিও ডাক্তাররা বলছেন এই ক্যান্সার কোষগুলো মৃত। কিন্তু নভেম্বরে করা স্ক্যান থেকে আমরা এ সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে পারব।


 সিনিয়াদের মা বলেন যে সে স্কুলে যেতে চেয়েছিল।  সে তার বন্ধুদের অনেক মিস করত।  ক্লান্ত থাকা সত্ত্বেও এবং ভাল না লাগলেও, সে সপ্তাহে তিন দিন স্কুলে যায়।  স্কুলে সিনিয়াদের অভিজ্ঞতা ভালো ছিল না, সহপাঠীরা তার উইগের জন্য তাকে নিয়ে মজা করত।  জোডি বলেন, "আমিও স্কুলে গিয়েছিলাম এই বিষয়ে অভিযোগ করার জন্য কিন্তু যখন আমি বাড়ি ফিরে আসি তখন আমি সিনিয়াদকে দেখে অবাক হয়ে যাই। আমার ছোট মেয়ে উইগ না পরে ইউনিফর্ম পরে স্কুলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিল।"


 জোডি আরও বলেন, "সিনিয়াদের সাহস দেখে আমি নিজেকে নিয়ে গর্বিত ছিলাম, কিন্তু আমি তখনও ভয় পেয়েছিলাম যে তার ক্লাসের বন্ধুরা তাকে আবার কষ্ট দেবে।  আমার ছোট্ট মেয়েটি বলে যে সে এখন কারও কথায় মনোযোগ দেবে না।


 ডিম্বাশয়ের ক্যান্সারকে 'সাইলেন্ট কিলার'ও বলা হয়।  দুই-তৃতীয়াংশ মহিলাদের মধ্যে, এটি একটি খুব দেরী পর্যায়ে শনাক্ত করা হয়।  এইরকম অবস্থায় এটি জরায়ুতে সম্পূর্ণভাবে ছড়িয়ে পড়ে এবং এর চিকিৎসা কঠিন।  এজন্যই পেটে ফোলা, পেট বা শ্রোণী এলাকায় ব্যথা, খাওয়ার সময় অবিলম্বে পূর্ণ অনুভূতি, ঘন ঘন প্রস্রাব, পিঠে ব্যথা, ওজন কমানোর মতো উপসর্গ উপেক্ষা করা উচিৎ নয় কারণ এটি প্রাথমিক পর্যায়ে ধরা পড়লে এর চিকিৎসা সম্ভব এবং ১০ জনের মধ্যে ৯ জনের আয়ু অর্থাৎ প্রায় ৯৩ শতাংশ ৫ বছর বা তারও বেশি সময় ধরে বাড়তে পারে।  একই সময়ে, উন্নত পর্যায়ে, মাত্র ১৩ শতাংশ মহিলা এই রোগের পরে বেঁচে থাকতে সক্ষম।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad