একজন সাধারণ আধিকারীকের সোনার টয়লেট দেখে হতবাক তদন্তকারী দল - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Friday, 23 July 2021

একজন সাধারণ আধিকারীকের সোনার টয়লেট দেখে হতবাক তদন্তকারী দল

 



নিউজ ডেস্ক:কোনও সরকারী কর্মকর্তা কি এত টাকার অধিকারী হতে পারেন যে তিনি নিজের বাড়িতে সোনার টয়লেট ব্যবহার করতে পারেন?  শুনে আপনি হতবাক হয়ে যেতে পারেন ।ঘটনাটি রাশিয়ার  যেখানে এক ট্রাফিক পুলিশ অফিসারকে দুর্নীতি ও ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল এবং তার বাড়ীতে তল্লাশি করার পর  তদন্তকারীদের চক্ষু চরক গাছ হয়ে যায়।  


 তদন্ত দল যখন অভিযুক্তের বাড়িতে অভিযান চালায়, তখন তারা তার দৃষ্টিনন্দন কক্ষ, অসাধারণ সাজসজ্জা এমনকি সোনার টয়লেট খুঁজে পেয়ে হতবাক হয়ে যায়।  কর্মকর্তারা পরে দুর্নীতির মাধ্যমে অধিগ্রহণ করা সমস্ত সম্পত্তির ফুটেজও প্রকাশ করেছিলেন।  


 

 আসলে রাশিয়ার তদন্ত কমিটি স্ট্যাভ্রপোলের দক্ষিণাঞ্চলে দুর্নীতির অভিযোগে পুলিশ কর্মকর্তা আলেক্সি সাফোনভ এবং ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছিল।  কোনও অপরাধী চক্রকে পারমিট দেওয়ার বিনিময়ে টাকা নেওয়ার সন্দেহে এই লোকদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। 

 

 অফিসাররা সাফোনভের প্রাসাদে অভিযান চালালে সেখান থেকে সোনার টয়লেট সহ অনেক কিছুই পাওয়া যায়।  ঘরের সাজসজ্জা এমন ছিল যে মনে হয় এটি কোনও রাজার বাড়ি। 



 স্কাই নিউজ অনুসারে, আলেক্সি সাফোনভের অপরাধী দলটিকে ঘুষের বিনিময়ে একটি  কার্গো পরিবহণের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।  পারমিটের কারণে পরিবহনকারীরা সহজেই পুলিশ পোস্টগুলি পেরিয়ে যায় এবং তাদের কোনও তদন্তও হয় নি।  



 রাশিয়ার তদন্ত কমিটি, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এফবিআইয়ের সমান সমান, বলেছিল যে অফিসার এবং তার সাথে গ্রেপ্তার করা অন্যরা ৲৯ মিলিয়ন রুবেল (

১৮৭,৫৬৮ ডলার) বা ১,৯১,৭৭,২৬৬ টাকা ঘুষ পেয়েছিল।  


 

 গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের মধ্যে একজন প্রাক্তন সিনিয়র ট্রাফিক অফিসার, একজন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর এবং চার বেসামরিক নাগরিক অন্তর্ভুক্ত ছিলেন।  দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল - ইউনাইটেড রাশিয়া - এর একজন প্রবীণ রাজনীতিবিদ আলেকজান্ডার খিনস্টেইন বলেছেন যে একটি বড় অভিযানের অংশ হিসাবে ৩৫ জনেরও বেশি ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছিল।


 

 তদন্তের জন্য এই অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের প্রায় ৮০ বার সম্পত্তি অভিযান চালানো হয়েছিল, এতে প্রচুর নগদ অর্থ ব্যয়বহুল গাড়ি ও নথিপত্র বাজেয়াব্দ করা হয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad