হর্ষদ মেহতার পরিবার এখন কোথায় আছেন - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Friday, 2 July 2021

হর্ষদ মেহতার পরিবার এখন কোথায় আছেন

 

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম সনি লিভে সুপারহিট ওয়েব সিরিজ 'স্ক্যাম ১৯৯২' প্রকাশিত হয়েছিল। এই ওয়েব সিরিজটি ৯০ এর দশকে দেশের বৃহত্তম কেলেঙ্কারী স্টক এক্সচেঞ্জের আসামি হর্ষাদ মেহতার জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল। এই কেলেঙ্কারীটি কয়েক কোটি টাকার ছিল, যা ১৯৯২ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল। ২০০১ সালে পুলিশ হেফাজতে মারা গিয়েছিলেন হর্ষদ মেহতা। 



হর্ষাদ মেহতার মৃত্যুর পরে, তার বিরুদ্ধে মামলাগুলি বন্ধ করা হয়নি, তবে তার স্ত্রী এবং পরিবার কয়েক দশক ধরে এই মামলা দিয়ে লড়াই করেছেন। হর্ষদের স্ত্রীর নাম জ্যোতি মেহতা এবং তার ভাইয়ের নাম আশ্বিন মেহতা। হর্ষদের একটি ছেলেও রয়েছে, যার নাম অতুর মেহতা। আপনি কি জানেন যে, হর্ষদ মেহতার পরিবার এখন কোথায় ? 'স্ক্যাম ১৯৯২' দেখার পর থেকে মানুষের মনে প্রশ্ন উঠছে যে, হর্ষদ মেহতার পরিবারের লোকেরা কোথায়? 


হর্ষদ মেহতার স্ত্রী জ্যোতি মেহতা এই মামলাটি প্রায় ২৭ বছর ধরে আদালতে লড়াই করেছিলেন এবং ফেব্রুয়ারী ২০১৯ এ, আদালত তাকে একটি বড় স্বস্তি দিয়েছে। আদালত হর্ষদ মেহতার উপর ২.০১৪ কোটি টাকার করের বকেয়া অপসারণ করেছে। হর্ষাদ মেহতার স্ত্রী জ্যোতি মেহতা এবং ভাই আশ্বিন মেহতার পক্ষে এটি ছিল বড় স্বস্তি। 


জ্যোতি মেহতা অন্য স্টকব্রোকার কিশোর জনানী এবং ফেডারেল ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে আদালতে মামলাও জিতেছিলেন। যার মধ্যে ৬ কোটি টাকা হর্ষদ মেহতাকে দেওয়ার কথা ছিল। আদালত আদেশ দিয়েছিলেন যে, জ্যোতি মেহতাকে সেই অর্থের পাশাপাশি বছরে ১৮ শতাংশ হারে সুদ দেওয়া উচিত। 


হর্ষদ মেহতার ভাই অশ্বিন মেহতা তার আইন ডিগ্রি নিয়েছেন। তিনি বোম্বাই হাইকোর্টের পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্টে অনুশীলন করেন। তিনি হর্ষাদ মেহতার অনেক মামলা লড়েছেন এবং তার পক্ষে প্রায় ১৭০০ কোটি টাকাও পেয়েছিলেন।এছাড়া হর্ষদ মেহতার ছেলে অতুর মেহতাও একজন ব্যবসায়ী। তবে তিনি লাইমলাইটে আসতে পছন্দ করেন না। এই কারণেই তিনি আজ অবধি কোনও মিডিয়া হাউসে সাক্ষাৎকার দেননি।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad