জেনে নিন চিরতার স্বাস্থ্যগুণ - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Thursday, 8 July 2021

জেনে নিন চিরতার স্বাস্থ্যগুণ

 



 নিউজ ডেস্ক : এ জাতীয় অনেক ওষুধের কথা আয়ুর্বেদে বলা হয়েছে, যা স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। চিরতা তাদের মধ্যে অন্যতম। যার মধ্যে নিম এবং কালমেঘ উভয়ের বৈশিষ্ট্য পাওয়া যায়। চিরতার ব্যবহার স্থূলত্ব এবং ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা থেকে খুব দ্রুত মুক্তি দেয়। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ব্যবহার হয়, যা সর্দি এবং কাশিকে গোড়া থেকে  দূর করে।


চিরতার  বিশেষত্ব :


আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞ ডাঃ আবরার মুলতানির মতে, চিরতা ইংরেজিতে স্বেরটিয়া নামে পরিচিত। এটিতে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট, হেপাটোপ্রোটেক্টিভ, ল্যাক্সেটিভ, হাইপোগ্লাইসেমিক, হজম বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা সামগ্রিক স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে। এর সাহায্যে লিভার ফাংশন, ক্ষুধা, হজম, বিপাক, ওজন হ্রাস ইত্যাদি খুব সহজেই করা যায়।




চিরতায় পাওয়া উপকারিতা:


ডাঃ আবরার মুলতানি বলেছেন যে, চিরতায় স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর জিনিসের অনেক গুণ রয়েছে। এর স্বাদ যত তেতো, ততই মারাত্মক রোগ থেকে রক্ষা করে এটি। আসুন আমরা চিরতা ব্যবহারের সুবিধাগুলি জানি।


চর্বি দ্রুত হ্রাস করে :


চিরতার শুকনো পাতা দ্রুত স্থূলত্ব কমাতে খুব উপকারী। এগুলিতে উপস্থিত ফাইবার এবং প্রয়োজনীয় পুষ্টি আপনার অস্বাস্থ্যকর ডায়েটের সম্ভাবনা হ্রাস করতে সহায়তা করে। একই সাথে চিরতা সেবনে শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও হ্রাস পায়। বিপাকটি তার ব্যবহারের মাধ্যমে ত্বরান্বিত হয়, যার কারণে শরীরে ফ্যাট জ্বলানোর প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। আপনি এটির জন্য শুকনো অ্যাবসিন্থ গাছ থেকে প্রস্তুত একটি ডিকোশন পান করতে পারেন।


ডায়াবেটিসের চিকিৎসা :


ডাঃ মুলতানির মতে হাইপোগ্লাইসেমিক হওয়ায় চিরতায় অসাধারণ বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা রক্তে শর্করার মাত্রা হ্রাস করে। এটি গ্রহণের ফলে শরীরে ইনসুলিন উৎপাদনকারী কোষগুলির ক্রিয়াকলাপ বৃদ্ধি পায়। যার কারণে শরীরে রক্তে শর্করার মাত্রা কমতে শুরু করে এবং ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। ডায়াবেটিস রোগীরা চিরতার শুকনো পাতাগুলির একটি ডিকোশন  পান করে ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পেতে পারে।


অনাক্রম্যতা বৃদ্ধি করে :


সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং প্রতিরোধ করতে, চিরতা দীর্ঘকাল ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এটির দৃঢ় অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি সাধারণ সর্দি থেকে মুক্তি দিতে খুব কার্যকর বলে প্রমাণিত হয়। আপনার শরীরে যদি কোনও ক্ষত হয় তবে স্যালিসিলিক ব্যবহার করে এটিও দ্রুত নিরাময় করা যায়।



এখানে প্রদত্ত তথ্যগুলি কোনও চিকিৎসার পরামর্শের বিকল্প নয়। এটি কেবল শিক্ষার উদ্দেশ্যে দেওয়া হচ্ছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad