ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় আগাম প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদন জানান মানস ভুঁইয়া - Breaking Bangla |breakingbangla.com | Only breaking | Breaking Bengali News Portal From Kolkata |

Breaking

Post Top Ad

Monday, 24 May 2021

ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় আগাম প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদন জানান মানস ভুঁইয়া

  


শুক্রবার পশ্চিম মেদিনীপুর  জেলার সবং ব্লক এর  বি ডি ও  তুহিন শুভ্র মহান্তি ইমারজেন্সি ভিত্তিতে  একটি গুরুত্বপূর্ণ  সভা ডেকে ছিলেন।  খুব তাড়াতাড়ি আম্ফান এর মত যে ঝড় আছড়ে পড়বে পশ্চিম মেদিনীপুরের মাটিতে তার প্রস্তুতি হিসাবে। এই সভায় ছিলেন  পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ডাক্তার মানস ভুঁইয়া, প্রাক্তন বিধায়ক গীতা ভূঁইয়া, ১৩ টি অঞ্চলের প্রধান ,লাইন ডিপার্টমেন্টের অফিসাররা ।


আগাম ঝড়ের মোকাবিলার জন্য সব রকম প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আহবান করেন রাজ্যের জলসম্পদ  উন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী ডাক্তার মানস ভুঁইয়া। তিনি বলেন প্রতিটি অঞ্চলে থাকা হাই স্কুল গুলিকে অবিলম্বে রেসকিউ সেন্টার হিসাবে তৈরি করা ,সেখানে জেনারেটর লাইট ব্যবস্থা করা ,বিশেষ করে কেলেঘাই কপালেসরি নদীর ধারে যারা বসবাস করেন তাদেরকে ২৪ মে সকাল থেকে তুলে এনে যে ১৪ খানা রেসকিউ সেন্টার তৈরি করা হয়েছে সেখানে তাদেরকে রাখতে হবে ।


 তাদের ড্রাই ফুড এর ব্যবস্থা করতে হবে। বাচ্চাদের দুধের ব্যবস্থা করতে হবে, যাতে দু তিন বেলা রান্না করে খাওয়ানো হয় তার সব রকম প্রস্তুতি নিতে বলেন এবং মন্ত্রী এ ও বলেন ব্লক ডেভলপমেন্ট অফিসার তুহিন শুভ্র মহান্তি কে। অবিলম্বে বিডিও অফিসের গেস্টরুম রেডি করতে তিনি বলেন। যেখানে তিনি নিজে ২৪ সে মে সকাল থেকে কন্ট্রোল রুমে থাকবেন। পুলিশের কর্তা ,বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মকর্তা, p.h.e. টেলিফোন সমস্ত কর্মকর্তাকে উনার সঙ্গে থাকতে হবে এবং সব দপ্তর  থেকে রেস্কিউ টিম রেডি করা হচ্ছে যেখান থেকে  কোন খবর আসবে সঙ্গে সঙ্গে যেন আমাদের অফিসাররা এবং সমাজসেবী দের সঙ্গে নিয়ে এলাকার মানুষের কাছে গিয়ে দাঁড়াতে পারি।


 গত কয়েকটি ঝড়ের শিক্ষা থেকে আমাদের এখনই সব রকম প্রস্তুতি নিতে হবে  শনিবার থেকে প্রতিটি অঞ্চলে মাইক দিয়ে প্রচার হবে এবং পুলিশ পঞ্চায়েতের প্রধানের নির্দেশ দেন যে সমস্ত স্তরের মানুষ রা বিভিন্ন ভাবে বসবাস করেন যদি এইরকম কোন  ঘর পাওয়া যায় তাদেরকে তুলে আনতেই হবে এবং আমাদের রেস্কিউ সেন্টারে  রেখে তাদের সমস্ত খাবার ব্যবস্থা করতে হবে  এবং পরিস্থিতির কথা চিন্তা ভাবনা করতে হবে। 


সেখান থেকে বেরিয়ে হরিরহাট অনাথ বন্ধু বালিকা বিদ্যালয়ে তিনি যান।সেখানে ৪০০ জন গ্রামীণ ডাক্তারদের নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্কুলের একটি অডিটোরিয়াম হলে একটি সচেতন শিবিরে অংশগ্রহণ করেন এবং তাদের বলেন আপনারাই কিন্তু মানুষের কাছে প্রথম ভগবান। হসপিটাল নার্সিং হোম যাওয়ার আগে আপনারা যা সেবা দেন সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনাদের পিপি  মাস্ক সহ কিছু জিনিসপত্র প্রাক্তন বিধায়ক গীতা ভূঁইয়া সাহায্য করবেন বলে আশ্বাস দেন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad